বুধবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৮, ১০:৪৮:৩৫ অপরাহ্ণ
Home » অপরাধ » ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী গণধর্ষণের অভিযোগ

১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী গণধর্ষণের অভিযোগ

মোঃ আতাউর রহমান মিয়া,হাটহাজারী(চট্টগ্রাম)সংবাদদাতাঃ
হাটহাজারীতে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠেছে তিন যুবকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে এগারটার দিকে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের আদর্শগ্রাম আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে রহিমা প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে ঘর থেকে বের হলে আগে থেকে উৎ পেতে থাকা তিন বখাটে যুবক আজম (২৩), মাসুম (২৯) ও মনা (২২) তার মুখে কাপড় পেচিয়ে পাহাড়ের দিকে নিয়ে যায়। পরে প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর বখাটেরা ধর্ষিতাকে ঘটনা কাউকে জানালে তাকে হত্যা করে লাশ গুম করার ভয় দেখিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বলে ভুক্তভোগীর পরিবারের অভিযোগ।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, বখাটেদের ভয়ে ওই কিশোরীকে চিকিৎসার জন্যও ঘর থেকে বের করতে পারেনি। তবে শনিবার সন্ধ্যার দিকে ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর শারীরিক অবস্থা আরো খারাপের দিকে গেলে পরিবারের লোকজন বখাটেদের চোঁখ ফাকি দিয়ে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। পরে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর ভাই বলেন, ঘটনার পর থেকে বখাটেদের হুমকির কারণে আমরা গৃহবন্দি হয়ে পড়ি। যার কারণে আমার বোনকে সঠিক সময়ে চিকিৎসা পর্যন্ত করাতে পারিনি। শনিবার সন্ধ্যার দিকে তাদের চোঁখ ফাকি দিয়ে অনেক কষ্টে আমার বোনকে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। তবে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় দারিত্বরত ডাক্তার তাকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। বর্তমানে আমার বোন চমেক এর দ্বিতীয় তলায় চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় সবশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হাটহাজারী মডেল থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বলে জানান ধর্ষণের শিকার কিশোরীর ভাই।

হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকার্তা(টিএইচও)ডাঃ আবু সৈয়দ মো.ইমতিয়াজ হোসাইন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ইত্তেফাককে জানান, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই কিশোরীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে দ্রুত চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

হাটহাজারী মডেল থানার ওসি(তদন্ত)শামীম শেখ ইত্তেফাক কে জানান, ভিকটিমের চিকিৎসা চলছে,ডাক্তারী রিপোর্ট হাতে পেলে মামলা হবে। আর মামলা হলেই এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য,গত ১৪ মেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় হাটহাজারী পৌরসভার ফটিকা শাহজালাল পাড়ার একটি ভবনে তুহিন নামের এক স্কুল ছাত্রীকে একই ভবনের চতুর্থ তলার ভাড়াটিয়া শাহনেওয়াজ মুন্না নামের এক বখাটে তার বাসায় নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করে। ঐ ঘটনায় নিহতের ভাই তিন জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করলে মুল আসামী মুন্নাকে আটক করা হলেও এখনো পর্যন্ত মামলার অপর ২ আসামীকে আটক করা যায়নি বলে সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *