মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৮, ৩:৪১:২৫ অপরাহ্ণ
Home » সারাদেশ » চট্টগ্রাম » হবিগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কে জেলা যুবলীগের সভাপতি আতাউর রহমান সেলিমের গাড়ি বহরে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় জেলা যুবলীগের ২০ নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার বিকেলে বানিয়াচং উপজেলা যুবলীগের একটি অনুষ্ঠানে জেলা যুবলীগের অনেক নেতাকর্মী নিয়ে জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম যোগদান করেন। অনুষ্ঠান শেষে রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে হবিগঞ্জ শহরে ফেরার পথে বানিয়াচং সড়কের সুনারু এলাকায় পৌঁছামাত্রই একদল দুর্বৃত্তরা দেশীয় অস্ত্রসহ নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় নেতাকর্মীদের দুটি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়। হামলায় জেলা যুবলীগের প্রায় ২০ নেতাকর্মী আহত হন। আহতরা হলেন- যুবলীগ নেতা মোঃ আক্তার হোসেন, জসিম উদ্দিন, বিপুল রায়, বিপ্লব রায়, দেলোয়ার হোসেন খান, আবুল কাশেম রুবেল, শিমুল আহমেদ, মেহেদি হাসান ফাহিম, মুবারুল ইসলাম ও রাহুল দাশ। আহতদের মধ্যে আক্তার হোসেনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় জড়িত এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কে জেলা যুবলীগের সভাপতি আতাউর রহমান সেলিমের গাড়ি বহরে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় জেলা যুবলীগের ২০ নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার বিকেলে বানিয়াচং উপজেলা যুবলীগের একটি অনুষ্ঠানে জেলা যুবলীগের অনেক নেতাকর্মী নিয়ে জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম যোগদান করেন। অনুষ্ঠান শেষে রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে হবিগঞ্জ শহরে ফেরার পথে বানিয়াচং সড়কের সুনারু এলাকায় পৌঁছামাত্রই একদল দুর্বৃত্তরা দেশীয় অস্ত্রসহ নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় নেতাকর্মীদের দুটি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয়া হয়। হামলায় জেলা যুবলীগের প্রায় ২০ নেতাকর্মী আহত হন। আহতরা হলেন- যুবলীগ নেতা মোঃ আক্তার হোসেন, জসিম উদ্দিন, বিপুল রায়, বিপ্লব রায়, দেলোয়ার হোসেন খান, আবুল কাশেম রুবেল, শিমুল আহমেদ, মেহেদি হাসান ফাহিম, মুবারুল ইসলাম ও রাহুল দাশ। আহতদের মধ্যে আক্তার হোসেনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় জড়িত এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাস টার্মিনাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১২ কেজি গাজাসহ ২ যুবককে আটক করেছে টেকনাফ থানা পুলিশ। বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা হলো, টেকনাফ পৌর এলাকার কায়ুকখালী পাড়ার মৃত অলি আহাম্মদের ছেলে জাফর আলম (২৮) ও মো. ইউছুফের ছেলে আলমগীর (২৭)।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রণজিৎ কুমার বড়ুয়া জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এসব গাঁজাসহ তাদের আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরণ করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *