রবিবার, আগস্ট ১৯, ২০১৮, ১২:১৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ
Home » সারাদেশ » ময়মনসিংহ » সুন্দরগঞ্জে পরিত্যক্ত এসএও কোয়াটারের সম্পদ খোঁয়া যাচ্ছে

সুন্দরগঞ্জে পরিত্যক্ত এসএও কোয়াটারের সম্পদ খোঁয়া যাচ্ছে

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পরিত্যক্ত এসএও কোয়াটার গুলো দীর্ঘ দিন ধরে মেরামত, সংস্কার ও সংরক্ষণ না করায় ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি কোয়াটার গুলো এখন অসামাজিক কার্যকলাপের আড্ডা খানায় পরিনত হয়েছে। কোন প্রকার তদারকি না থাকায় কোয়াটারের দালান ঘর এবং জায়গা জমি বেহাত হয়ে যাচ্ছে দিনের পর দিন।
উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর সভায় আশির দশকে কৃষি অধিদপ্তরের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয় বিএস (এসএও) কোয়াটার গুলো। সেই সময় কোয়াটার গুলো ব্যবহার করতেন কৃষি অধিদপ্তরের ব্লক সুপারভাইজারগণ (বিএস)। বর্তমানে তাদেরকে বলা হচ্ছে উপ-সহকারি কৃষি অফিসার। দিনের পর দিন কোয়াটার গুলো পুন:মেরামত, সংস্কার এবং তদারকি না করায় বর্তমানে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এক শ্রেনির অসাধু ব্যক্তিরা দিন দিন কোয়াটারের জায়গা জমি বেদখল এবং ঘরের ইট খুলে নিয়ে যাচ্ছে। কৃষিতে বাংলাদেশ স্বয়ং সম্পূণ হলেও মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তাদের কোন প্রকার অফিস নেই। ইদানিং ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে মাঠ পর্যায়ের উপ-সহকারি র্কষি অফিসারদের জন্য একটি রুম বরাদ্দ দেয়া হলেও সেখানে নেই আসবাবপত্র। যার কারেনে কৃষকদের সেবা প্রদানে সমস্যা হচ্ছে। শান্তিরাম ইউনিয়নের উপ-সহকারি কৃষিঅফিসার নুরুল হুদা জানান-কৃষকরা এখন অল্প জমিতে একাধিক ফসল ফলানোর জন্য সব সময় তাদের কাছে পরামর্শ নিয়ে থাকেন। ইউনিয়ন পর্যায়ে কোন অফিস না থাকায় মাঠে মাঠে গিয়ে কৃষকদের পরামর্শ এমনকি প্রশিক্ষন প্রদান করতে হচ্ছে। সে কারনে এসএও কোয়াটার গুলো মেরামত ও সংস্কার করা একান্ত প্রয়োজন। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রাশেদুল ইসলাম জানান- কৃষকদের গুনগতমান সম্পন্ন ফসল উৎপাদনের জন্য পরামর্শ প্রদানের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হলে মাঠ পর্যায়ের অফিসারদের অফিস থাকা দরকার। এতে করে কাজের মান আরও বৃদ্ধি পাবে। তিনি বলেন কোয়াটার গুলো সংস্কারের অভাবে ব্যবহার না করায় বর্তমানে ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *