সোমবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৭, ১:৪৪:৩৬ অপরাহ্ণ
Home » সারাদেশ » ময়মনসিংহ » শেরপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অনাস্থা

শেরপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সদস্যদের অনাস্থা

শেরপুর প্রতিনিধি:

কিশোরীদের বয়স বাড়িয়ে সার্টিফিকেট দিয়ে বাল্য বিবাহে সহায়তা, নারী ইউপি সদস্যদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ, জন্ম নিবন্ধনের সার্টিফিকেট প্রদানে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে অর্থ আদায়, টিআর, কাবিখা, কাবিটা ও এলজিএসপি প্রকল্পে অনিয়মসহ দুর্নীতির সুনির্দিষ্ট ১৪টি অভিযোগ এনে শেরপুরের ঝিনাইগাতীর এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সকল সদস্যরা অনাস্থা দিয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার ১নং কাংশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জহুরুল হকের বিরুদ্ধে এ অনাস্থা প্রস্তাব আনা হয়। পরে ইউপি কার্যালয়ে ১২জন ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে সর্বসম্মতিক্রমে এ সংক্রান্ত একটি রেজুলেশন পাশ করা হয়।

১নং কাংশা ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম মিস্টার বলেন, ইউপি কার্যালয়ের নামে নতুন সোলার প্যানেল বরাদ্দ নিয়ে জহুরুল হক তার নিজ বাড়িতে তা স্থাপন করেন এবং তার ব্যবহৃত একটি পুরাতন  সোলার প্যানেল পরিষদ ভবনে লাগিয়ে দেন। এছাড়া গুরুচরণ দুধনই বাজারে কোন মাদ্রাসা না থাকলেও ভুয়া মাদ্রাসা দেখিয়ে সোলার প্যানেল বরাদ্দ নিয়ে তার ছোট ভাই আমিনুল ইসলামের বাড়িতে দেন। শুধু তাই না নাবালিকাদের বয়স বাড়িয়ে সার্টিফিকেট দিয়ে অভিভাবকদের কাছ থেকে আদায় করছেন মোটা অংকের টাকা। দুর্নীতির এমন ১৪টি অভিযোগ লিখিতভাবে আজ পাঠানো হবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সচিব,  জেলা প্রশাসক,  জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা  চেয়ারম্যান বরাবরে।

ওই ইউপির আরেক সদস্য লুৎফর রহমান বলেন, নারী ইউপি সদস্যদের সাথে প্রতিনিয়ত অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন চেয়ারম্যান জহুরুল। এছাড়া তার স্বার্থের ব্যাঘাত ঘটলে অকারনে অন্যান্য সদস্যদের অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করেন চেয়ারম্যান। তাই আমরা ১২জন ইউপি সদস্য একত্র হয়ে তার বিরুদ্ধে অনাস্থা দিয়েছি।

অন্যদিকে দুর্নীতির সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চেয়ারম্যান জহুরুল হক। তিনি বলেন, আমার এলাকায় টিআর বরাদ্দের সকল কাজ ভালভাবে সম্পন্ন হয়েছে। চাইলে স্থানীয় এমপি, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করতে পারেন।

এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা করিম জানান, এখন পর্যন্ত আমি এমন কোন অভিযোগ পাইনি , অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখবো।

এসএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *