সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০১৯, ৮:৫৬:৩৮ পূর্বাহ্ণ
Home » অন্যান্য » মৌলভীবাজারে জমি সংক্রান্ত বিরোধে নিহত ২ আহত ৪০

মৌলভীবাজারে জমি সংক্রান্ত বিরোধে নিহত ২ আহত ৪০

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ॥ মৌলভীবাজারে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ২জন নিহত ও ৪০ জন আহত হয়েছেন। ১৪ জুলাই (শনিবার) সকালে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের প্রম্মদপুর গ্রামের জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে এই আহত নিহতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় পম্মদপুর গ্রামের লেবাস মিয়া ও এলাইছ মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে বড় হাওর এলাকায় প্রায় ৪০ বিঘা সরকারি বিলের জমি দখল নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উভয় পক্ষের সমর্থক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২ জন ঘটনাস্থলে নিহত ও অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ও সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান এই খাস ভুমির দখলদারিত্ব নিয়ে দীর্ঘ প্রায় ১৫-২০ বছর থেকে বিরোধ চলছে। এনিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে একাধিক সালিশ বৈঠকেও এর কোন সুরাহা হয়নি। গত ২-৩ দিন থেকে পুরনো এ দ্বন্ধ আবারো মাথাছাড়া দিয়ে উঠে। শুক্রবার সন্ধ্যায় এই নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়লে কয়েকজন আহত হন ও কয়েকটি বাড়িও ভাংচুর হয়। পরে স্থানীয়রা উভয়পক্ষকে শান্ত করেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার সকালে আবারো উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্রসহ রনসাজে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। কয়েক ঘন্টা সংর্ঘষ চলারপর পুলিশ ও এলাকাবাসীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। তবে এ ঘটনায় আবারো রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়বাসিন্দারা। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন রয়েছে। নিহতরা হলেন পম্মদপুরের লেবাস মিয়া গ্রুপের মোবারক আলীর ছেলে শফিকুর রহমান (২২) ও এলাইছ মিয়া গ্রুপের ওয়ারিশ মিয়ার ছেলে আব্দুল মালিক (৫৫)। নিহতের লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রাশেদুল ইসলাম ও খলিলপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অরবিন্দু পোদ্দার বাচ্চু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *