শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯, ৬:১৬:০০ অপরাহ্ণ
Home » অন্যান্য » মির্জাপুরে হাসপাতাল থেকে গরু চোর পলাতক এলাকায় গরু চুরির হিড়িক

মির্জাপুরে হাসপাতাল থেকে গরু চোর পলাতক এলাকায় গরু চুরির হিড়িক

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, স্টাফ রিপোর্টারঃ-
গরু চুরি করে জনতার হাতে ধরা পরে গন পিটুনির শিকার এক গরু চোর চিকিৎসা নিতে এসে কুমুদিনী হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেছে।ঘটনার পর হাসপাতাল ও পুলিশের মধ্যে তোলপার শুরু হয়েছে।এদিকে এলাকায় গরু চুরির হিড়িক পরায় সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে এ গরু চুরির ঘটনা ঘটছে ।
আজ বুধবার ওয়ার্শি ইউনিয়নের ওয়ার্শি গ্রামের বাসিন্দা ও আওয়ামীলীগ নেতা মো. মোরাদ খান অভিযোগ করেন, গত কয়েক দিনের ব্যবধানে ওয়ার্শি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে অন্তত ১৬ টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।গরু চুরির ফলে এলাকার জনসাধারনের মধ্যে বিরাজ করছে আতংক আর উদ্বেগ।ওয়ার্শি গ্রামের মো. ফরহাদ হোসেন খান শাহীন, হিটলু খান ও দেউলীপাড়া গ্রামের মিনহাজ উদ্দিনসহ ৮-৯ জন গৃহস্থ্যের ১৬টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার দিনে দুপুরে ওয়ার্শি মল্লিক মার্কেট এলাকা থেকে গরুসহ এক চোরকে আটক করে গনধোলাই দিয়ে পুলিশকে খবর দেয় এলাকার লোকজন।খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার উপ পরিদর্শক মো. ফয়সাল হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে গনপিটুনির শিকার গরু চোরকে নিয়ে এসে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।সেখান থেকে গরু চোর পালিয়ে যায়।তার নাম মো. শফি মিয়া(৩৫)।গ্রামের বাড়ি গাজীপুর জেলার কাশিমপুরে কড্ডা এলাকায় বলে জানা গেছে।সে ধামরাই এলাকায় দীর্ঘ দিন ধরে শ^শুর বাড়ি বসবাস করে গরু চুরি করে আসছিল।একই দিনে বাঁশতৈল ইউনিযনের নয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী হেলাল দেওয়ানের দুটি গরু চুরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন।
এদিকে উপজেলার মহেড়া, জামুর্কি, ফতেপুর, বানাইল, ওয়ার্শি, আনাইতারা, বহুরিয়া, ভাওড়া ভাদগ্রাম, লতিফপুর, গোড়াই, আজগানা, তরফপুর ও বাঁশতৈল ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে একের পর এক গরু চুরি হচ্ছে বলে এলাকার ভুক্তভোগিরা জানিয়েছেন।রাত জেগে পাহাড়া দিয়েও গৃহস্থ্যরা গরু চুরি ঠেকাতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার ওসি(তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন বলেন, বিভিন্ন এলাকায় গরু চুরির খবর তাদের কাছে আসছে।প্রতিটি এলাকায় পুলিশের অভিযান জোরদার করা হয়েছে।গরু চোরদের ধরতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চলছে বলে এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *