বুধবার, আগস্ট ১৫, ২০১৮, ৩:০৭:১৭ অপরাহ্ণ
Home » অপরাধ » মির্জাপুরে মহেড়া ইউপি চেয়ারম্যান বাদশার বিরুদ্ধে কোটি টাকা আত্নসাতের অভিযোগে

মির্জাপুরে মহেড়া ইউপি চেয়ারম্যান বাদশার বিরুদ্ধে কোটি টাকা আত্নসাতের অভিযোগে

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, মির্জাপুর(টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা: অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে প্রায় কোটি টাকা আতœসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ১ নং মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়া(৫০) বিরুদ্ধে।চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে ১ নং মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নির্বাচিত ১০ জন মেম্বার দুর্নীতিবাজ চেয়ারম্যান বাদশা মিয়াকে অপসারণ ও অনাস্থার দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন ও মহেড়া এলাকায় তোলপার শুরু হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন বরাবর ঐ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নারী সদস্যসহ ১০ জন মেম্বার লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।লিখিত অভিযোগে জানা গেছে,চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়া নির্বাচিত হওয়ার পর ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের সঙ্গে যোগসাজস করে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে বিভিন্ন ভুয়া প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় এক কোটি টাকা আতœসাত করেছেন। (২০১৫-২০১৬) ও (২০১৬-২০১৭) অর্থ বছরের হত দরিদ্রদের জন্য ৪০ দিনের কর্মসুচীর প্রায় ১৫ লাখ টাকা, ১ ভাগ হারে ভুমি উন্নয়ন কর বাবদ ১০ লাখ টাকা, টি আরও কাবিখার জন্য বরাদ্ধ প্রায় ২০ লাখ টাকা, ট্যাক্্র আদায় বাবদ ৬ লাখ টাকা, বিচার প্রার্থীদের কাছ থেকে আদায়কৃত প্রায় ১০ লাখ টাকা, ভুমি পরিমাপের জন্য বিভিন্ন জনের কাছ থেকে আদায়কৃত ৫ লাখ টাকা, ভিজিডি ও ভিজিএফ এবং জন্ম ও মৃত্যু সনদ এবং ওয়ারিসিয়ান সনদ বাবদ প্রায় ১৫ লাখ টাকা, এল, জি, এসপি,র প্রকল্পের জন্য বরাদ্ধকৃত প্রায় ১৫ লাখ টাকা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য বরাদ্ধকৃত প্রায় ১৫ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে টাকা উত্তোলন করে কাজ না করে লাখ লাখ টাকা আতœসাত করেছেন চেয়ারম্যান বাদশা মিয়া বলে লিখিত অভিযোগে পাওয়া গেছে।
লিখিত অভিযোগকারীদের মধ্যে ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম(৪৫), ছোরহাব হোসেন(৫০), টিটুল মিয়া(৪০) ও মহিলা সদস্য হাজেরা খাতুন(৫০)সহ ১০ জন মেম্বারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান বাদশা মিয়া একজন দুর্নীতিবাজ।তিনি আওয়ামীলীগ থেকে বহিঃস্কৃত হয়েও একটি প্রভাবশালী মহলের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে একের পর এক দুর্নীতি করে লাখ লাখ টাকা আতœসাত করে যাচ্ছেন।আমরা মেম্বারগন এর প্রতিবাদ করতে গেলে তিনি নানা ভাবে আমাদের হয়রানী ও ভয়ভিতি দেখিয়ে থাকেন।নিরুপায় হয়ে আমরা সকল মেম্বারগন চেয়ারম্যানকে আনাস্থা দিয়ে লিখিত অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর দিয়েছি।তাকে দ্রত বরখাস্ত করা না হলে কঠোর আন্দোলন ও কর্মসুচী হাতে নেওয়া হবে।
১ নং মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদের সেক্রেটারী (সচিব) দেওয়ান মজনু মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি কিছু দিন হলো সচিব হিসেবে যোগদান করেছি।আমার ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এসেছে তার তদন্তের দাবী জানান তিনি।
এ ব্যাপারে ১ নং মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগসাজস করে মেম্বারগন আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।তদন্ত কমিটি গঠন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

//এল//

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *