রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৯, ৬:৩৩:০৪ অপরাহ্ণ
Home » অন্যান্য » মির্জাপুরে ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলছে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

মির্জাপুরে ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলছে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, স্টাফ রিপোর্টারঃ-
শ্রেণীর কক্ষের অভাবে কোমলমতি ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের চলছে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান। এক দিকে রোদ অপর দিকে বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ঝুঁকির মধ্যে কোমলমতি এসব শিক্ষার্থীদের খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলায় অভিভাবকগনও ক্ষুব্দ। দীর্ঘ দিন ধরে এভাবে পাঠদান চলে আসলেও নতুন ভভন নির্মানসহ প্রয়োজনীয় কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ১১৯ নং ভাওড়া ইউনিয়নের ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলছে কোমলমতি শিক্ষাথৃীদের খোলা আকামের নিচে পাঠদান।
আজ সোমবার ১১৯ নং ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিক্ষার্থী, তাদের অভিভাবক এবং বিদ্যালয়ের শিক্ষক মন্ডলী অভিযোগ করেন, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ২০০শ এবং শিক্ষক কর্মচারী রয়েছেন ৬ জন। বিদ্যালয়ের ফলাফল সন্তোষজনক। দীর্ঘ দিন ধরে চলছে এই বিদ্যালয়ে ভবন সংকটসহ শ্রেণীর কক্ষের স্বল্পতা। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইঞ্জনিয়ার মো. জুয়েল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়ে নেই পর্যপ্ত আসবাবপত্র। বিদ্যালয়ে একটি পাকা ভবন নির্মানের জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, এমপি মহোদয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসারসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট তারা আবেদন নিবেদন করে আসছেন। ভবন নির্মানের জন্য তারা দিয়েছেন নানা প্রতিশ্রতি। তার ব্যক্তি উদ্যোগে বিদ্যালয়ের মাঠের পাশে একটি টিনসেট ঘর নির্মান করে দিয়েছেন। তারপরও সমস্যার সমস্যার সমাধান হচ্ছে না। আজ পর্যন্ত পাকা ভবন নির্মান এবং শ্রেণী কক্ষ স্বল্পতা নিরসনের জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। আসবাবপত্র ও শ্রেণী কক্ষের অভাবে বিদ্যালয়ের সমানের গাছের নিচে বসে অথবা মাঠে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে। খোলা আকাশর নিচে পাঠদান হওয়ায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। দীর্ঘ সময় মাটিতে বসে পড়াশোনা করায় অনেকেই অসুস্থ্য হয়ে পরছে বলে ক্ষুদে শিক্ষার্থী ও শিক্ষক মন্ডলী অভিযোগ করেন। বিদ্যালয়ে নানা সমস্যার কারনে এলাকার ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে বিরুপ প্রতিক্রিয়া এবং অনেক শিশুই ঝুড়ে পরে শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
এ ব্যাপারে ১১৯ নং ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবু হানিফ মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ভবন সংকট ও শ্রেণী কক্ষ স্বলতার কথা স্বীকার করে বলেন, তাদের এ সমস্যা দীর্ঘ দিনের। সমস্যা সমাধানের জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, স্থানয়ি এমপিসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা চেয়েছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন, ১১৯ নং ভাওড়া নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মানসহ সমস্যা সমাধানের জন্য উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মাননীয় এমপি মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত সমাধান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *