শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮, ৪:২৪:১৭ পূর্বাহ্ণ
Home » সম্পাদকীয় » ভোলায় নতুন গ্যাসক্ষেত্র

ভোলায় নতুন গ্যাসক্ষেত্র

ভয়াবহ গ্যাস সংকটের কারণে শিল্প-কারখানায় উৎপাদন মারাত্মকভাবে বিঘিœত হওয়ার প্রেক্ষাপটে দেশবাসী যখন ভীষণ উদ্বেগের মধ্য দিয়ে সময় অতিবাহিত করছিল, তখন ভোলায় নতুন গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কারের খবরটি একটি স্বস্তির বার্তা নিয়ে এসেছে। ভোলার শাহবাজপুরে বিদ্যমান গ্যাসক্ষেত্রের পাশে নতুন আবিষ্কৃত গ্যাসক্ষেত্রে ৭০০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস প্রাপ্তির সম্ভাবনা রয়েছে- প্রাথমিকভাবে এমনটাই ধারণা দেয়া হয়েছে বাপেক্সের পক্ষ থেকে। এ আবিষ্কারের মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাপেক্স নতুন করে সক্ষমতার পরিচয় দিল। আমরা মনে করি, প্রতিষ্ঠানটির সক্ষমতা বাড়ানো হলে তারা ভবিষ্যতে দেশবাসীকে আরও বড় সুখবর দিতে পারবে।
গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটের কারণে শিল্প-কারখানায় উৎপাদন বিঘিœত হওয়ার বিষয়টি নতুন নয়। গ্যাস সংকটের কারণে বিভিন্ন শিল্প এলাকার কলকারখানা দিনের বেশিরভাগ সময় বন্ধ রাখার বিষয়টি বারবার গণমাধ্যমে এসেছে। প্রতিদিন শত শত কোটি টাকার পণ্য উৎপাদনে চরম বিঘ্ন ঘটেছে এ সংকটের কারণে। এর ফলে অনেক রফতানিমুখী শিল্প-কারখানা লোকসানের মুখে পড়েছে। গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটের কারণে অনেক সময় লোকসান গুনেও উৎপাদন অব্যাহত রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় কোনো কোনো কোম্পানির রফতানি আদেশ বাতিল হওয়ার আশঙ্কাও তৈরি হয়।
দেশে গ্যাসের চাহিদা ক্রমবর্ধমান। চাহিদার তুলনায় সরবরাহ সংকট তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। দেশে মজুদ গ্যাস ফুরিয়ে গেলে গ্যাসনির্ভর শিল্প-কারখানাসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে গ্যাসের ব্যবহার যাতে অব্যাহত রাখা যায় সেজন্য তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানির প্রক্রিয়া চলছে। কিন্তু সমস্যা হল, আমদানিকৃত এলএনজি ব্যবহার করতে হবে চড়া দামে। এলএনজির দাম হবে গ্যাসের বর্তমান মূল্যের কয়েকগুণ বেশি। চড়া দামের আমদানিকৃত এলএনজি ব্যবহার করে কয়টি শিল্প-কারখানা টিকে থাকতে পারবে, এটা এক বড় প্রশ্ন। সবচেয়ে বড় কথা, চড়া দামের এলএনজি ব্যবহার করে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়বে দেশের শিল্প খাত। এমনকি অনেক শিল্প-কারখানা বন্ধও হয়ে যেতে পারে। এতে বিপুলসংখ্যক শ্রমিক বেকার হয়ে পড়বে।
শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থান বাড়াতে হলে দেশের প্রাকৃতিক গ্যাসের সহজপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে। এ উদ্দেশ্যে বাপেক্সকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। বাপেক্স শক্তিশালী হলে আমাদের বিশাল সমুদ্রেও নতুন নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান মিলবে বলে আশা করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *