শুক্রবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৮, ৬:৪৪:০৩ অপরাহ্ণ
Home » অর্থনীতি » ব্রাজিলে শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা চায় বাংলাদেশ

ব্রাজিলে শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা চায় বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার: ব্রাজিলে শুল্কমুক্ত বাজার প্রবেশ (ডিউটি ফ্রি কোটা ফ্রি মার্কেট এক্সেস) সুবিধা চায় বাংলাদেশ।

রোববার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত জুয়াও তাবাজারা ডি অলিভিরা জুনিয়রের সঙ্গে বৈঠকে এ প্রস্তাব দেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বৈঠক শেষে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ডব্লিউটিও’র (বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা) মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা ব্রাজিলে ডিউটি ফ্রি কোটা ফ্রি মার্কেট এক্সেস পেতে পারি। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশ এবং অধিকতর উন্নয়নশীল দেশ ডিউটি ফ্রি কোটা ফ্রি মার্কেট এক্সেস দিয়েছে। চিলিও আমাদের এ সুবিধা দিয়েছে।

‘আমি প্রস্তাব করেছি তিনি (ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত) তার সরকারের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন। ব্রাজিলে আমাদের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গেও আলোচনা করবেন। যাতে আমরা ডিউটি ফ্রি কোটা ফ্রি মার্কেট এক্সেস পাই।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আরেকটি প্রস্তাব দিয়েছি যে, তা না হলে আমরা ব্রাজিলের সঙ্গে ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট (এফটিএ) করতে পারি। এ আলোচনা শুরু করব। এটি হলে ব্রাজিলেরও সুবিধা হবে, তারা কিছু এক্সপোর্ট করলেও শুল্ক দিতে হবে না। আমাদের তৈরি পোশাকের বিরাট বাজার হবে দক্ষিণ আমেরিকা। তাদের ইকনোমিক ইউনিয়ন আছে যার নাম- সাউথ আরেরিকান ট্রেড ব্লক। আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ে এ ইউনিয়নের সদস্য। একটি দেশে যেই সিদ্ধান্ত হয় চারটি দেশেই তা মানা হয়।’

‘দক্ষিণ আমেরিকায় আমাদের পোশাকের চাহিদা রয়েছে, কিন্তু ডিউটি বেশি থাকায় ব্যবসায়ীরা রফতানি করতে পারে না। এজন্য আমরা এ সুযোগ-সুবিধাগুলো চেয়েছি’- বলেন তোফায়েল।

তিনি আরও বলেন, সিদ্ধান্ত হয়েছে আমরা আলোচনা শুরু করব এবং একটি বাণিজ্য প্রতিনিধি দল ব্রাজিলে যাবে। আমাকে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে। তবে এ বছর আমার যাওয়া সম্ভব না। কারণ ৯ ডিসেম্বর থেকে ব্রাজিলে শুরু হবে ১১তম ডব্লিউটিও মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্স। সেখানে যোগ দিতে ৮ ডিসেম্বর আমি ঢাকা ছাড়ব। তবে সেখানেও আমি আলোচনা করব।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে এক বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি পণ্য রফতানি করে ব্রাজিল। বাংলাদেশ রফতানি করে ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

২০১১-১২ অর্থবছরে ব্রাজিলে ১৫৬ মিলিয়ন ডলার রফতানি হলেও এখন তা অনেকটা কমে গেছে। কারণ জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তেলের দাম, ডলারের অতিমূল্যায়নসহ নানা কারণে রফতানি কমেছে। আশা করি আগামীতে বাড়বে।

বাংলাদেশের ১০০টি স্পেশাল ইকনোমিক জোনের মধ্যে ব্রাজিলকে বিনিয়োগের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বলেও জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

//এল//

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *