শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮, ১০:৪২:৩৬ অপরাহ্ণ
Home » অর্থনীতি » বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন রাইস কুকারে যত চমক

বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন রাইস কুকারে যত চমক

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক:

২৩তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় সাশ্রয়ী মূল্যের বিভিন্ন মডেলের রাইস কুকার নিয়ে এসেছে দেশের শীর্ষ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

বুধবার ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে গিয়ে দেখা যায়, ব্যাচেলর বা গৃহিণী সবারই নজর রাইস কুকারের দিকে। আর ওয়ালটন বাণিজ্য মেলা উপলক্ষে রাইস কুকারে দিচ্ছে বিশেষ ছাড়।

ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে আসা নাসিমা চৌধুরী বলেন, অফিসের কাজ, সন্তানের দেখাশোনা, সংসারের দায়িত্ব বর্তমান সময়ের কর্মজীবী নারীদের প্রতিদিনের রুটিন। এর মধ্যে রান্না নিজ হাতে করতে হলে তো কথাই নেই। তবে ব্যস্ত জীবনের কাজগুলো সহজে দ্রুত করার জন্য নানা ধরনের হোম অ্যাপ্লায়েন্সও রয়েছে। যা দিয়ে একটু হলেও স্বস্তি পাওয়া যায়। আর এসবের দামটাও এখন হাতের নাগালে।

তিনি আরো বলেন, শত ব্যস্ততার মধ্যেও প্রতিদিনের খাবার প্রতিদিনই রান্না করতে হয়। রাইস কুকার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ফ্রিজ, ব্লেন্ডার, ড্রায়ার, ওভেনের মতো যন্ত্র আমাদের কর্মজীবী নারীদের জীবনযাত্রা অনেকটা সহজ করে তুলেছে। আমি অফিসে থাকলে স্বামী আর ছেলেই ওভেনে খাবার গরম করে খেয়ে নেয়।

নাসিমা চৌধুরী বলেন, কিছু দিন আগে বাসায় বসে অনলাইনে দেখেছিলাম ওয়ালটনের বিভিন্ন মডেলের রাইস কুকার। এসব পণ্যের দাম অনেক কম, দেখতেও অনেক সুন্দর। যে কারোরই পছন্দ হবে। তাই মেলায় এসেছি কেনার জন্য। এখানে আবার সব ধরনের রাইস কুকারেই ৭ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাচ্ছে। এই ছাড়ের কথা শুনে খুবই ভালো লাগছে।

তিনি আরো বলেন, ওয়ালটন দামে সাশ্রয়ী ও মানের দিক থেকেও খুব ভালো। অল্প সময়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। ওয়ালটন দেশীয় পণ্য। দেশের উন্নয়নের জন্য সবার উচিত ওয়ালটনের পণ্য কেনা।

রাইস কুকার সম্পর্কে ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের কর্মকর্তা মো. হাদী তৈমুর বলেন, ওয়ালটন রাইস কুকারের কিছু মডেলে অনেক নতুন নতুন কিছু প্রযুক্তির ছোঁয়া দেওয়া হয়েছে। এই কুকারে টাইম দিয়ে রান্না করা যায়। যেমন: যদি কেউ রমজান মাসে রাত ২টায় রান্না করতে চায় তাহলে কুকারে সব কিছু দিয়ে রাখলে রাত ২টায় অটোমেটিক রান্না হয়ে যাবে। রান্না হয়ে যাওয়ার পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে রাইস কুকার বন্ধ হয়ে যায়। সকালে অফিসে যাওয়ার সময় ভাত রান্না করতে দিয়ে গেলে দুপুরে বা বিকেলে এসেও খাওয়া যাবে।

তিনি আরো বলেন, এবারের বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটনের ১৭টি মডেলের রাইস কুকার পাওয়া যাচ্ছে। বড় আকারের ৩.২ লিটার এবং ছোট আকারের ১ লিটার। এসবের দাম ১ হাজার ৩০০ থেকে ৩ হাজার ৫৫০ টাকা। মেলা উপলক্ষে ৭ শতাংশ ছাড় দেওয়া হচ্ছে।

মেলায় ওয়ালটনের যেসব মডেলের রাইস কুকার পাওয়া যাচ্ছে তা হলো- WRC-C220-2.2Lt, দাম ২৪৯০ টাকা। WRC-T 220-2.2Lt, দাম ২১৮০ টাকা, WRC-M180-1.8Lt, দাম ১৭২০ টাকা। WRC-D250 (2.25Lt), দাম ২৫০০ টাকা। WRC-T280 (2.8Lt), দাম ২৫৮০ টাকা। WRC-C320 (3.2Lt), দাম ২৩৫০ টাকা। WRC-C322 (3.2Lt), দাম ৩৫৫০ টাকা। WRC-D280 (2.8Lt), দাম ২৮৮০ টাকা। WRC-T222 (2.2Lt), দাম ২২২০ টাকা। WRC-C181 (1.8Lt), দাম ১৭৮০ টাকা। WRC-P100 (1.1Lt), দাম ১৭৮০ টাকা। WRC-8T28 (2.8Lt), দাম ২৭৫০ টাকা। WRC-P103 (1.3Lt), দাম ১৩৫০ টাকা। WRC-P105 (1Lt), দাম ১৩০০ টাকা। WRC-D220 (2.2Lt), দাম ২৩৮০ টাকা। WRC-D321 (3.2Lt), দাম ২৯৯০ টাকা। WRC-T225 (2.2Lt), দাম ২৩৮০ টাকা। এই দাম থেকে ৭ শতাংশ ছাড় দেওয়া হচ্ছে মেলা উপলক্ষে।

ওয়ালটনের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (পিআর অ্যান্ড মিডিয়া) হুমায়ুন কবীর বলেন, সামগ্রিক প্রেক্ষাপটে মানুষের জীবনযাত্রার মান দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ওয়ালটন নিয়ে এসেছে বিভিন্ন গৃহস্থালী পণ্য। এসব গৃহস্থালী পণ্য সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রাকে অনেক সহজ করে দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা চাই দেশের মানুষকে আরো কাজে গতিশীল করতে বা সময় সাশ্রয় করতে। তাই তাদের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে ওয়ালটন রাইস কুকার নিয়ে এসেছি।

হুমায়ুন কবীর বলেন, বর্তমান সময়ে সবার খুব ব্যস্ত সময় পার করতে হয়। তাদের সময় যেন অপচয় না হয় সেজন্য ওয়ালটন গ্রুপের রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ওয়ালটন বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি। দেশের মানুষের জীবনযাত্রাকে কীভাবে আরো সহজ ও উন্নত বিশ্বের মতো অত্যাধুনিক করা যায়, এ বিষয়ে ওয়ালটন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। নতুন নতুন গৃহস্থালী পণ্য এনে ওয়ালটন দেশের মানুষের জীবনযাত্রার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে। আমরা এই কাজগুলো সুন্দর ও সুচারুভাবে করতে পারছি বলেই ওয়ালটন দেশ ও আন্তর্জাতিক বাজারে মাথা উঁচু করে অবস্থান তৈরি করতে পেরেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *