সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ৮:০১:০২ পূর্বাহ্ণ
Home » জাতীয় » প্রেমিকের আত্মহত্যার খবরে তরুণীর আত্মহত্যা!

প্রেমিকের আত্মহত্যার খবরে তরুণীর আত্মহত্যা!

অনলাইন ডেস্ক :
কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় এক প্রেমিক যুগল আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মঙ্গলবার উপজেলার নাওগাও এবং রাঙ্গামাটিয়া ইউনিয়নের বাবুলের বাজার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত ওমর ফারুক পলাশ (১৮) নাওগাও গ্রামের মুদির দোকানদার সাইফুল ইসলামের ছেলে এবং আরিফা আক্তার (১৬) বাবুলের বাজার গ্রামের প্রবাসী নুরুল ইসলামের মেয়ে। তারা উপজেলার পলাশীহাটা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ছিল।এ বিষয়ে ফুলবাড়িয়া থানার ওসি কবীরুল ইসলাম জানান, প্রেম সংক্রান্ত বিষয়ে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। সকালে ছেলে ও এর কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে মেয়েটি আত্মহত্যা করে। মেয়ের হাতে লেখা ছিল ‘পলাশ আমিও আসতেছি।’ লাশ দুটো ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত পলাশের মা বলেন, আমার ছেলে এক জনকে ভালবাসতো জানতাম; কিন্তু সে কে আমরা জানতাম না। অনেকদিন ধরেই ছেলেটা আমার অসুস্থ ছিলো।তিনি বলেন, সকালে যখন তার ঘরের দরজা খোলার জন্য বলি; তখন সে দরজা না খুললে জানালা খুলে দেখি ঘরে ফাঁস নিয়ে ঝুলতেছে।পলাশের মা বলেন, ‘আমার একমাত্র পোলাটা কেমন কইরা মারা গেলো আমি জানিনা। আল্লায় আমার কলিজার টুকরারে এমন কইরা কাইড়া নিলো কেন?’পলাশের মৃত্যুর খবর জানাজানির কয়েক ঘণ্টা পর একইভাবে ঘরের ঘরে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহতা করে আরিফাও।আরিফার বড় চাচা আ. হাকিম জানান, আরিফারা তিন বোন। এর মধ্যে সে মেজো। সকাল ১১টার দিকে আরিফার ছোট বোন আরিফাকে ডাকতে গেলে দরজা খুলেই আরিফার ঝুলন্ত লাশ দেখে। এরপর আশপাশের সবাই এগিয়ে আসে।স্থানীয়রা জানান, একই সাথে পড়াশুনা করার সময় প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে পলাশ ও আরিফা। এ বছর এই্চএসসি পরীক্ষা দেওয়ার পর পলাশ পাশ করে গেলেও এক বিষয়ে ফেল করে আরিফা। মূলত এর পর থেকে একে অপরের মধ্যে মান অভিমান চলছিল। এ নিয়েই আত্মহ্যার ঘটনা ঘটতে পারে।

পলাশীহাটা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ এ কে ম শামসুল হক বলেন, এমন ঘটনা আসলেই মেনে নেয়া যায় না। এমন ঘটনা খুবই দুঃখজনক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *