শুক্রবার, জানুয়ারি ১৮, ২০১৯, ৩:১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Home » শিক্ষা » প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনীতে বসছে ৩১ লাখ শিশু

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনীতে বসছে ৩১ লাখ শিশু

অনলাইন ডেস্ক :
প্রাথমিক ও মাদ্রাসার ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় এ বছর ৩০ লাখ ৯৫ হাজার ১২৩ জন শিশু শিক্ষার্থী অংশ নেবে। এর মধ্যে প্রাথমিকে ২৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৭০ জন এবং ইবতেদায়িতে ৩ লাখ ১৭ হাজার ৮৫৩ জন পরীক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আগামী রোববার থেকে সারাদেশে ৭ হাজার ৪১০টি কেন্দ্রে একযোগে এই দুই পরীক্ষা শুরু হবে। দেশের বাইরে ১২টি কেন্দ্রে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা হবে। বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ৩ হাজার ২৯৪ জন শিশু শিক্ষার্থীও এবার পরীক্ষায় অংশ নেবে। তারা অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় পাবে।

মন্ত্রী বলেন, দুর্গম এলাকার ২০৪টি কেন্দ্রে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়েছে। দায়িত্ব পালনে ন্যূনতম অবহেলা বা অনিয়মের বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করা হয়েছে। এবার পরীক্ষায় বহু নির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) থাকছে না বলেও জানান তিনি।

প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে গত বছর থেকে দেশের ৬৪ জেলাকে বিশেষ আটটি অঞ্চলে ভাগ করে আট সেট প্রশ্ন ছাপিয়ে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী নিচ্ছে সরকার। চলতি বছরের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ সৃজনশীল বা যোগ্যতাভিত্তিক প্রশ্ন চালু করা হয়েছে। প্রাথমিক সমাপনীতে সৃজনশীল প্রশ্নের হার গত কয়েক বছর ধরে ধাপে ধাপে বাড়াচ্ছিল সরকার। ২০১৭ সালে ৮০ শতাংশ এবং ২০১৬ সালে প্রতি বিষয়ে ৬৫ শতাংশ প্রশ্ন যোগ্যতাভিত্তিক ছিল, বাকি প্রশ্ন ছিল ট্র্যাডিশনাল।

২০০৯ সালে শুরু হওয়া প্রাথমিক সমাপনীতে ২০১২ সালে প্রথমবারের মতো ১০ শতাংশ সৃজনশীল প্রশ্ন সংযোজন করা হয়েছিল। ২০১৩ সালে ২৫ শতাংশ, ২০১৪ সালে ৩৫ শতাংশ এবং ২০১৫ সালে ৫০ শতাংশ সৃজনশীল প্রশ্নে খুদে শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা হয়।

এবার থেকে প্রাথমিক সমাপনীর সব প্রশ্ন শতভাগ সৃজনশীল হলেও পরীক্ষার সময় আগের মতই আড়াই ঘণ্টা রাখা হয়েছে। সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়ার ফলে পাবলিক পরীক্ষায় নকলের প্রবণতা কমার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের চিন্তা করে উত্তর লেখার দক্ষতা বাড়ছে বলে দাবি করছে সরকার।

প্রাথমিক সমাপনীর সূচি: ১৮ নভেম্বর ইংরেজি, ১৯ নভেম্বর বাংলা, ২০ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, ২২ নভেম্বর প্রাথমিক বিজ্ঞান, ২৫ নভেম্বর গণিত এবং ২৬ নভেম্বর ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা।

ইবতেদায়ি সমাপনীর সূচি: ১৮ নভেম্বর ইংরেজি, ১৯ নভেম্বর বাংলা, ২০ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় এবং বিজ্ঞান, ২২ নভেম্বর আরবি, ২৫ নভেম্বর গণিত এবং ২৬ নভেম্বর কোরআন ও তাজবিদ এবং আকাইদ ও ফিকাহ। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ২০০৯ সাল থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা শুরু হয়। আর ইবতেদায়িতে এই পরীক্ষা হচ্ছে ২০১০ সাল থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *