সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ৬:২০:৩৫ অপরাহ্ণ
Home » অন্যান্য » প্রবীণরা এই বয়সে তাদের সহধর্মীনিদের সাজালো নিজে

প্রবীণরা এই বয়সে তাদের সহধর্মীনিদের সাজালো নিজে

কুষ্টিয়া থেকে রিয়াজুল ইসলাম সেতু
যদি বউ সাজো গো,,, আরো সুন্দর লাগবে গো, এই গানের মতো করেই প্রবীণরা তার সহধর্মীনিদের পাউডার, স্নো, ঠোটে লিপষ্টিক, মেকাপসহ সাজিয়ে দিচ্ছে। বয়সের ভারে ন্ব্যৃজ হলেও বাদ দেয়নি কপালের মাঝখানেতে লাল টুকটুকে টিপ পরানোও। তবে এটি ছিলো একটি প্রতিযোগীতা। ১০ জোড়া দাম্পত্যিদের নিয়ে এমনই এক প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয় মিরপুর উপজেলার মশানে। দিশা সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচির অংশ হিসেবে নবীন-প্রবীনদের আনন্দ উৎসবে প্রবীণরা নিজেই তাদের সহধর্মীনিদের সাজানোয় ব্যস্ত ছিলেন।
যেমন একদিকে আনন্দ উল্লাস প্রকাশ করছে আবার অন্যদিকে এতো মানুষের সামনে লজ্জায় লাল হয়ে যাচ্ছিলো দাম্পত্যিদ্বয়। বৌ বেসে সাজানোর পদ্ধতি এই প্রবীণ বয়সে নিজেকে অবাক করে তোলে নয় বৈকি। এমন স্মৃতিচারণ করে প্রবীণ শংকর চন্দ্র বলেই ফেললেন সেই সবে যে বিয়ে করেছি। তা মনেই নেই। প্রথম সেই নতুন বউয়ের মুখ দেখা। অবশ্য তার সেই নতুন বরের সেই অনুভূতিগুলো প্রকাশ করেছে শতশত মানুষের সামনে।
শনিবার দিনব্যাপী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মশান বাজার সংলগ্ন দিশা কমিউনিটি হাসপাতাল চত্বর প্রাঙ্গনে নবীন-প্রবীণ আনন্দ উৎসবে যোগ দিতে আসে শত শত প্রবীণ ও নবীন। এতে দিনব্যাপী বিভিন্ন হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা হা ডূ ডূ খেলা ফুটবল খেলা কানামাছি অন্ধের হাড়ি ভাঙ্গা রশি টানাটানি বালিশ বদলসহ অন্তত ২০ধরনের খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে এসব অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মিরপুর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম জামাল আহমেদ। এদিকে দিনশেষে প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *