বুধবার, মে ২৩, ২০১৮, ১০:৫২:২৯ পূর্বাহ্ণ
Home » আন্তর্জাতিক » দ.আফ্রিকার গুপ্ত পরিবারে পুলিশের অভিযান

দ.আফ্রিকার গুপ্ত পরিবারে পুলিশের অভিযান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

দুর্নীতির অভিযোগে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রভাবশালী গুপ্ত পরিবারের বাসভবনে তল্লাশি অভিযান চালিয়েছে দেশটির পুলিশ। বুধবার জোহানসবার্গের গুপ্ত পরিবারের বিলাসবহুল বাড়িতে গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে হাজির হয় পুলিশ। গুপ্ত পরিবারের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

দক্ষিণ আফ্রিকায় গুপ্ত পরিবার প্রভাবশালী। বর্তমান প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমার সঙ্গে গুপ্ত পরিবারের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। জ্যাকব জুমা দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত হলে এই পরিবারের নাম সামনে চলে আসে। তাই পুলিশ জ্যাকব জুমার দুর্নীতির তদন্ত করতে গিয়ে গুপ্ত পরিবারের ওপর তদন্ত শুরু করে।

 

বুধবার গুপ্ত পরিবারের তিন ভাইয়ের মধ্যে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকী দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি। তবে, দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ বলছে বাকী দুই ভাই তাদের হাতের নাগালের মধ্যেই আছে।

 

দক্ষিণ আফ্রিকায় রাজনৈতিক সংকটের মূলে রয়েছে প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমার দুর্নীতি। সম্প্রতি জ্যাকব জুমার পার্টি আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস জ্যাকব জুমাকে প্রেসিডেন্ট পদ ছেড়ে দিতে বলেছেন। গুপ্ত পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার কারণে প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমার ওপর পদত্যাগ করার চাপ বাড়তে থাকে।

 

দক্ষিণ আফ্রিকায় গুপ্ত পরিবার একটি প্রভাবশালী ধনী ব্যবসায়ী পরিবার। তিন ভাই অতুল, রাজেশ ও অজেয় গুপ্ত পরিবারের ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে। দক্ষিণ আফ্রিকায় সোনা প্রক্রিয়াকরণ খনি, ইউরেনিয়াম প্রক্রিয়াকরণ খনি, দৈনিক পত্রিকা, ২৪ ঘণ্টা নিউজ চ্যানেল, কম্পিউটার বিজনেস, ইলেকট্রনিক বিজনেস, ট্রাভেল ও ট্যুরিজম ব্যবসা রয়েছে তাদের।

 

১৯৯৩ সালে ভারতের উত্তর প্রদেশ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় অভিবাসী হয় গুপ্ত পরিবার। তখন দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে শ্বেতাঙ্গদের শাসন যেতে বসেছে।

 

গুপ্ত পরিবারের নামে বিতর্ক ছড়ায় ২০১৬ সালে। তখন বলা হয়, দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ডেপুটি ফিনান্স মিনিস্টার মেসেবিসি জোনাসকে পরবর্তী অর্থমন্ত্রী করতে গুপ্তা পরিবার থেকে ৬০০ মি র‍্যান্ড (৫০মিলিয়ন ডলার) দেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার সরকারের ১ লাখ ইমেইল ফাঁস হয়ে যায়। এতে গুপ্ত পরিবারের সঙ্গে জ্যাকব জুমার ব্যবসায়িক সম্পর্ক ও প্রশাসনে তাদের প্রভাব সবকিছু ওপেন হয়ে পড়ে। ফাসকৃত ইমেল থেকে জানা যায় সরকারি কাজ পাইয়ে দিতে জুমা প্রশাসনের অবৈধ প্রভাব খাটাত গুপ্ত পরিবার। তাছাড়া জ্যাকব জুমার অর্থ পাচারে গুপ্ত পরিবারের হাত রয়েছে। এমন অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে রয়েছে।

 

গুপ্ত পরিবারের ব্যবসার সঙ্গে জ্যাকব জুমা পরিবারের সদস্যরা জড়িয়ে পড়েছিল। গুপ্ত পরিবারের বেশ কয়েকটি কোম্পানির পরিচালক পদে ছিলেন জ্যাকব জুমার ছেলে, মেয়ে ও তার স্ত্রীরা। যে কারণে জ্যাকব জুমা ৯ বছরের শাসনে গুপ্ত পরিবার ছিল সরকারে অত্যন্ত প্রভাবশালী। সূত্র : বিবিসি,রয়টার্স,এপি,এএফপি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *