বুধবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৮, ১:৩১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
Home » সারাদেশ » দোয়ারাবাজারে ব্যবসায়ীর উপর হামলা ও লুঠতরাজ আল-হেলাল,সুনামগঞ্জ থেকে :

দোয়ারাবাজারে ব্যবসায়ীর উপর হামলা ও লুঠতরাজ আল-হেলাল,সুনামগঞ্জ থেকে :

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় এক ব্যবসায়ীর উপর হামলা করে তার নগদ টাকা পয়সা লুঠতরাজ করেছে সন্ত্রাসী ডাকাতরা। গত ২৮ জানুয়ারী রোববার রাত ৭টায় উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজারস্থ আলী আকবর সোমিলে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্থানীয় ডাকাতদল ডাকাতির উদ্দেশ্যে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে লক্ষীপুর ইউনিয়নের এরুয়াখাই গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনির হোসেন (৩৭) এর উপর দীর্ঘদিন ধরে নজরদারী রাখছিল। ঘটনার দিন সময় ও সুযোগমতো মিলে বসে ব্যবসার টাকা গনণা করার প্রাক্কালে রামদা সহকারে ৪ সদস্যবিশিষ্ট ডাকাতদল অতর্কিতভাবে মনির হোসেনের উপর বর্বরোচিত হামলা করে। ডাকাত দলের প্রধান উছমান গনি কোন কিছু না বলেই প্রথমে মনির হোসেন এর মাথা লক্ষ্য করে ছেদ মেরে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। জখমের সময় ডাকাতদল টাকা যা আছে সব দিয়া দে বলে মনির হোসেনকে খুনের ভয় দেখায়। কিন্তু জখম হওয়ার পরও অংশীদারী ব্যবসার টাকা ডাকাতদলকে না দিয়ে আকড়ে ধরায় ডাকাত জাকির হোসেন মনির হোসেন এর মাথায় রামদা দিয়ে আরেকটি ছেদ মারে। তারপরও ব্যবসায়ের টাকা না দেয়ায় ডাকাত মতিন লোহার রডের দ্বারা বাম উরুতে বারী মেরে মনির হোসেনকে মেঝেতে ফেলে দেয়। পরে ডাকাত সিরাজ মনির হোসেনের বুকের বাম পাশের্^ ঘুষি মেরে তার বুকের ও প্যান্টের পকেটে থাকা আড়াই লাখ টাকা জোরপূর্বক ছিনতাই করে। এসময় আহত মনির হোসেনের আর্ত চিৎকারে স্থানীয় দেলোয়ারনগর গ্রামের মশ্রব আলী ও বক্তারপুর গ্রামের মিল মেস্তরী আব্দুল হামিদসহ আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে ডাকাতদল দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় গুরুতর জখমী মনির হোসেনকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ৫ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত ব্যবসায়ী মনির হোসেন চিকিৎসাধীন ছিলেন। এসময় ডাকাত দলের হামলায় গুরুতর আহত মনির হোসেনকে দেখতে লক্ষীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিরুল হক,রঙ্গারচর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালাম,নরসিংহপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সামসুল হক নম, সাবেক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হারুন অর রশীদসহ এলাকার গন্যমাণ্য লোকজন তাকে দেখতে জেলা সদর হাসপাতালে এসে ব্যবসায়ী মনির হোসেনের প্রতি সমবেদনা জানান এবং তার উপর হামলা ও লুঠতরাজকারী ডাকাতদলকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
জানা যায়, স্থানীয় লক্ষীপুর ইউনিয়নের সুড়ীগাঁও গ্রামের মৃত মহিউদ্দিন মুন্সীর পুত্র ডাকাত মতিন, ডাকাত মতিনের পুত্র জাকির হোসেন ও উছমান গনী এবং বসত আলীর পুত্র সিরাজের বিরুদ্ধে কৃষক আলাল মিয়া হত্যা ও ডাকাতির ঘটনায় দোয়ারাবাজার থানায় মামলা নং ৪ (জিআর ২২৫/২০১৪) তাং ৭/১২/২০১৪ইং দায়ের করা হয়। দোয়ারাবাজার থানার এসআই মোঃ হুমায়ূন কবীর (বিপি নং ৭৬৯৬০৯৬৭২৯) সরজমিন তদন্তক্রমে উক্ত ডাকাত দলের বিরুদ্ধে গৃহবধূ হালিমা খাতুনের দায়েরকৃত মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এছাড়াও উক্ত ডাকাতদল নারী ও শিশু নির্যাতনসহ এলাকায় একাধিক মামলার আসামী বলে জানায় পুলিশ।
দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ সুশীল রঞ্জন দাস এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,জখমীর অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *