শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮, ৮:২০:১৬ অপরাহ্ণ
Home » খেলাধুলা » টি-টোয়েন্টিতেও হোয়াইটওয়াশ টাইগাররা

টি-টোয়েন্টিতেও হোয়াইটওয়াশ টাইগাররা

সামনে রানের পাহাড় ছিল। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে হলে অবিশ্বাস্য কিছুই করতে হতো বাংলাদেশকে। তবে শুরুতেই ব্যাটিং-ধসে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টানা তৃতীয় হোয়াইটওয়াশ হলো টাইগাররা।রোববার পচেফস্ট্রুমের সেনওয়েস পার্কে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রানের বিশাল সংগ্রহ গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেটির পেছনে ছুটতে গিয়ে ১৪১ রানে অলআউট হয়ে যায় সাকিববাহিনী।

২২৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে দলীয় ২১ রানের মাথায় ইমরুল রানআউট হয়ে ফিরে গেলে বাংলাদেশের পতনের শুরু। এরপর ডুমিনির করা চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে বোল্ড হন সাকিব।

দ্রুত দুই উইকেট হারানোর পর সুবিধা করতে পারেননি মুশফিকও। ফ্রাইলিঙ্কের করা পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় বলে মোসেলেকে ক্যাচ দিয়ে সাকিবকে অনুসরণ করেন তিনি। এরপর ডুমিনির করা ষষ্ঠ ওভারের দ্বিতীয় বলে হেন্ডরিক্সকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নের দিকে হাঁটা দেন সাব্বির।

পঞ্চম উইকেটে সৌম্য ও মাহমুদউল্লাহ মিলে ৩৫ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপদ সামাল দেন। তবে অ্যারন ফাঙ্গিসোর করা নবম ওভারের শেষ বলে সৌম্য ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলে আরেকটি পরাজয়ের পথে হাঁটতে থাকে বাংলাদেশ। শেষদিকে সাইফউদ্দিনের ২৩ রান আর মিরাজের ১৩ রানে কোনোমতে ১৪১ রান পর্যন্ত যেতে পেরেছে টাইগাররা।

এর আগে পচেফস্ট্রুমে টসে জিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠান সাকিব আল হাসান। হাশিম আমলা ও ডেভিড মিলারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রানের পাহাড় গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ১০১ রান করেন মিলার। ৩৫ বলে সেঞ্চুরি করার পথে বিশ্বরেকর্ড গড়েন তিনি। ৩৬ বলে সাতটি চার ও ৯টি ছক্কায় ১০১ রানের দানবীয় অপরাজিত ইনিংস খেলেন মিলার। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৪৫ বলে সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড এতদিন ছিল রিচার্ড লেভির দখলে। রোববার স্বদেশি লেভিকে দুই নম্বরে ঠেলে দেন মিলার।

এ ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৫ রান করেন আমলা। তার ৫১ বলের ইনিংসে ১১টি চারের সঙ্গে একটি ছক্কার মার ছিল। ডি ভিলিয়ার্স করেন ১৫ বলে ২০ রান।

বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন সাকিব আল হাসান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ০-২ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ দিয়ে বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শুরু হয়। এরপর ওয়ানডে সিরিজে ০-৩ ব্যবধানের হোয়াইটওয়াশ সঙ্গী হয় টাইগারদের। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ২০ রানে পরাজিত শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৮৩ রানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হলো টাইগাররা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *