সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ৬:১৬:০২ পূর্বাহ্ণ
Home » বিনোদন » টাকা নয়, অভিনেত্রী হতে চেয়েছি

টাকা নয়, অভিনেত্রী হতে চেয়েছি

অনলাইন ডেস্ক :
নাজিফা তুশিনাজিফা তুশিঅপেক্ষায় ছিলেন ‘আইসক্রিম’ ছবির নায়িকা নাজিফা তুশি। একটি ভালো সিনেমার প্রস্তাব পেলেই লুফে নেবেন। তারপর মেকআপ নিয়ে গিয়ে দাঁড়াবেন ক্যামেরার সামনে। তাঁর অপেক্ষার পালা হয়তো শেষ হতে চলেছে। যেকোনো দিন তাঁর দিকে মুখ করে জ্বলে উঠবে অনেকগুলো বাতি।

টেলিভিশনে খুব বেশি দেখা যায় না নায়িকা নাজিফা তুশিকে। টিভি নাটকে কাজের অনেক প্রস্তাব পেয়েও সাড়া দেননি। ধৈর্য নিয়ে অপেক্ষা করছেন ভালো একটি চলচ্চিত্রের জন্য। টেলিভিশন নাটকে কাজ করলেন না কেন? বললেন, ‘চাইলে অন্তত ৫০টি নাটক করতে পারতাম। কিন্তু আমার টাকার দরকার নেই। আমি চলচ্চিত্রে কাজ করতে চেয়েছি, অভিনেত্রী হতে চেয়েছি।’

মিউজিক ভিডিওর দৃশ্যে ইমরান ও তুশিমিউজিক ভিডিওর দৃশ্যে ইমরান ও তুশিআজ শুক্রবার বিকেলে বান্দরবান থেকে মুঠোফোনে তিনি বলেন, ‘নরমাল প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করতে চাই না। সে জন্য অপেক্ষা করেছি। আশা করছি শিগগিরই ভালো খবর দিতে পারব।’ ছবির গল্পটি কেমন? তুশি জানান, ‘গল্পের অনেক কিছুই হয়তো কমন পড়বে। কিন্তু গল্প বলার ধরনটা ব্যতিক্রম। সেটাই আমার ভালো লেগেছে।’

একটি টিভি চ্যানেলে সৌন্দর্যবিষয়ক অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন নাজিফা তুশি। আর এখন চলছে তৃতীয় মিউজিক ভিডিওর দৃশ্য ধারণ। নায়ক সালমান শাহর জন্মদিন উপলক্ষে অনলাইনে প্রকাশিত হবে ভিডিওটি। সালমান শাহর ছবির একটি গান নতুন করে গাইছেন ইমরান মাহমুদুল। সেই মিউজিক ভিডিওর মডেল তুশি। নতুন করে দৃশ্যায়নের জন্য সাজানো হয়েছে একটি গল্প। আজই শেষ হবে ভিডিওর শুটিং। তুশি বলেন, ‘সালমান শাহ আমার প্রিয় নায়ক। তাঁর ছবির গান নিয়ে নতুন মিউজিক ভিডিও হচ্ছে, সেখানে কাজ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এখানে আমাকে অনেক গ্ল্যামারাস দেখা যাবে।’

নাজিফা তুশিনাজিফা তুশিকাজের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের মতো কঠিন কাজটি কীভাবে করেন? তুশি বলেন, ‘না বলার শক্তি খুব কম মানুষের থাকে। আমি সব সময় লোভ সংবরণ করার চেষ্টা করি। কাজ করলে তো ভালোই হতো। সম্মানী হিসেবে অনেক টাকা পেতাম, দর্শকদের চোখের সামনে থাকতে পারতাম। কিন্তু জয়া আহসান আপুকে দেখে আমি শিখি। তিনি বড় অভিনেত্রী। তাঁকে কিন্তু টেলিভিশন নাটকে হরহামেশাই দেখা যায় না। আমিও বড় পরিসরের দর্শকদের চোখের সামনে আসতে চেয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *