সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ৭:১৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ
Home » খেলাধুলা » কোহলি ছাড়া কারও পাস নম্বরই নেই!

কোহলি ছাড়া কারও পাস নম্বরই নেই!

অনলাইন ডেস্ক :
ইংল্যান্ডে একা কোহলি লড়াই করেছেন। বাকিরা পাস নম্বর পাননি। সর্বশেষ ৫ টেস্টের ১০ ইনিংসে কোহলির গড় ৫২.৬০। ভারতের আর কোনো ব্যাটসম্যানের গড় ২০ পেরোয়নি!
কোহলিতেই ভরসা ভারতীয় ক্রিকেট দলের। ঘরে বাঘ, বাইরে বিড়াল! এই অপবাদ ভারতীয় ক্রিকেট দল প্রায় ঘুচিয়ে ফেলেছিল। ওয়ানডের পাশাপাশি বিশেষ করে টেস্টে দেশের বাইরেও দাপট দেখাতে শুরু করেছিল। কিন্তু সেই রং চটে গিয়ে পুরোনো খোলসটা আবার দেখা দিতে শুরু করেছে। এর সবচেয়ে বড় দায় ভারতের ব্যাটসম্যানদের। সর্বশেষ দুটি বিদেশ সফরে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা রীতিমতো খাবি খেয়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার পর ইংল্যান্ডের পেস সহায়ক কন্ডিশনের কোনো উত্তর খুঁজে পাচ্ছেন না বিরাট কোহলির সতীর্থেরা।
এজবাস্টন টেস্টে তবু কিছুটা লড়াই করেছে ভারত। কিন্তু তা ছিল বিরাট কোহলির প্রায় নিঃসঙ্গ লড়াই। লর্ডস টেস্ট শেষ হলো ১৮০ ওভারেরও কমে। দুই ইনিংসেও ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে পারেনি ভারত। এর পেছনের কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছে ক্রিকইনফো। তাতে উঠেছে এসেছে ব্যাটসম্যানদের দুর্দশার ছবি। একা কোহলি লড়াই করেছেন। বাকিরা পাস নম্বর পাননি। সর্বশেষ ৫ টেস্টের ১০ ইনিংসে কোহলির গড় ৫২.৬০। ভারতের আর কোনো ব্যাটসম্যানের গড় ২০ পেরোয়নি!ঊঢ়ৎড়ঃযড়সধষড়
শেখর ধাওয়ানের গড় ১৭.৭৫, ভারতের নতুন দ্য ওয়াল বলা হচ্ছিল যাঁকে, চেতেশ্বর পূজারার গড় ১৪.৭৫। রোহিত শর্মার গড় ১০.৩৩। মুরালি বিজয়ের গড় ১২.৮। অজিঙ্কা রাহানের গড় ১১.৪। কেএল রাহুলের গড় ৮.১২!কোহলি একা কতটা এই দলের ব্যাটিং লাইনআপকে টানছেন, সেটি এই তথ্যেও বোঝা যাবে। গত ৫ টেস্টে কোহলি রান করেছেন ৫২৬। ভারতের বাকি শীর্ষ ৫ ব্যাটসম্যানের সম্মিলিত রান ৫০৫!
এর মধ্যে সবচেয়ে দুর্দশা চলছে মুরালি বিজয়ের। তাঁর সর্বশেষ ১০ ইনিংস ছিল ১, ১৩, ৪৬, ৯, ৮, ২৫, ২০, ৬, ০ ও ০! দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটিং পজিশন হলো তিন নম্বর। সেখানে সর্বশেষ আট ইনিংসে পূজারা মাত্র দুবার ২০ পেরিয়েছেন। পূজারা অবশ্য উইকেটে থিতু হওয়ার চেষ্টা করেছেন। আট ইনিংসে গড়ে ৫৭ বল ছিলেন উইকেটে। অন্তত তিনবার ৮০ বল খেলেছেন। কিন্তু থিতু হয়েও ইনিংসটাকে বড় করতে পারেননি।
ব্যাটসম্যানদের এই ব্যর্থতার কারণেই সর্বশেষ ১০ ইনিংসে ভারতের স্কোরগুলোরও চেহারাও তাই রুগ্ন: ২০৯, ১৩৫, ৩০৭, ১৫১, ১৮৭, ২৪৭, ২৭৪, ১৬২, ১০৭ ও ১৩০। মাত্র একবার তিন শ পেরিয়েছে। মাত্র তিনবার পেরিয়েছে দুই শ। কোহলি একপ্রান্ত আগলে রাখলেও অন্যপ্রান্তে প্রয়োজনীয় সাহায্য পাননি। ফলে তেমন জুটিও গড়ে ওঠেনি।
সর্বশেষ ১০ ইনিংসে ভারতের প্রথম ছয় উইকেট জুটির গড় ৩০ পেরোয়নি। প্রথম তিন উইকেট জুটির (১৭.৮, ৭.৭ ও ২৫.৩) চেয়ে সপ্তম আর অষ্টম উইকেট জুটির (২৭.৩, ২৮.৭) গড় ভালো। এই সময়ে ভারতের সেরা জুটি ছিল অষ্টম উইকেটে! এরপর সবচেয়ে ভালো গড় চতুর্থ উইকেটে (২৭.৬)। টপ অর্ডারের ব্যর্থতা মিডল অর্ডার সামলাতে পারেনি। পঞ্চম ও ষষ্ঠ উইকেট জুটির গড় রান (১৭.৫ ও ১৬.৬)!
দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ভারত তবু একটি টেস্ট জিততে পেরেছিল। কিন্তু ইংল্যান্ড সফরে যা অবস্থা, জো রুট তো হুমকি দিয়ে বসে আছেন, ৫-০তে ধবলধোলাই করবেন ভারতকে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *