শুক্রবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৮, ৫:৪৫:৫৭ পূর্বাহ্ণ
Home » অন্যান্য » কুষ্টিয়া খোকসার পাথালদৌড়-কালীবাড়ী রাস্তাটির বেহাল দশা ভোগান্তিতে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী

কুষ্টিয়া খোকসার পাথালদৌড়-কালীবাড়ী রাস্তাটির বেহাল দশা ভোগান্তিতে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী

কুষ্টিয়া থেকে রিয়াজুল ইসলাম সেতু
কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা শিমুলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সিংগরিয়া থেকে পাথালদৌড় প্রায় ১কিঃ মিঃ রাস্তাটি কর্দমাক্ত হওয়ায় ৬৯নং পাথালদৌড় কুসুমকলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে যেতে চায়না। বছরের শুকনা মৌসুমে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করার মত হলেও বর্ষা মৌসুম আসলেই হাটু সমান কাদায় পরিনত হয়। কৃষি নির্ভর এলাকা হওয়ায় গরু-মহিষের গাড়ী ও পাওয়ার টিলার উক্ত রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করায় কোমলমতি শিশুদের ও এলাকাবাসীর রাস্তাটি ব্যবহার করা একেবারেই অনুপযোগী হয়ে যায়। ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে উক্ত রাস্তাটির মাটি ভরাট কাজ করলেও অদ্যবদি রাস্তাটি পাকা না হওয়ায় বর্ষা মৌসুম আসলেই চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় রাস্তাটি ব্যবহারকারীগণদের। স্থানীয় কৃষক তোফাজ্জেল হোসেন (৪০), শোমসের শেখের স্ত্রী মাজেদা (৪৮) ও জামাল উদ্দিন শেখের স্ত্রী আছিয়া খাতুন (৩২) স্থানীয় সাংবাদিকদের দেখে ছুটে এসে বলেন আপনারা আমাদের এলাকার এই রাস্তাটি পাকা করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। কাদা মাটির ভিতর দিয়ে আমাদের ছেলে-মেয়েরা স্কুলে যেতে চায় না। ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী আছমা বলেন, বৃষ্টি হলেই আমাদের স্কুলে যাওয়ার রাস্তাটি কাদা মাটি হয়ে যায়। প্রায় সময়ই পা পিছলে কাদা মাটির মধ্যে পরে আমাদের বই ও কাপড়-চোপর নষ্ট হয়ে যায়। ঠিকমত স্কুলে যেতে পারিনা স্যাররা অনেক সময় আমাদের রাগ করেন। ১নং ওয়ার্ডের কুদ্দুস মেম্বর বলেন, ইউনিয়ন পরিষদে একাধিকবার তাগাদা দেওয়ার পর গত বছর মাটি ভরাট কাজ করা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে এর বেশি করা সম্ভব নয়। সিংগরিয়া-পাথালদৌর কালীবাড়ী রাস্তাটি পাকা করণের বিষয়ে শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ জানান, উক্ত রাস্তাটি এল,জি,ই,ডি এর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। চাহিদা পত্র দেওয়া হয়েছে এখন পর্যন্ত কোন ইতি বাচক সারা আমরা পাইনি। এদিকে ৬৯নং পাথালদৌড় কুসুমকলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, রাস্তাটি পাকা না হওয়ায় বিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থীই ঝড়ে যাচ্ছে, সময়মত কাসে উপস্থিত হতে পারে না শিক্ষার্থীরা। ফলে এলাকার শিশুদের নিরক্ষর মুক্ত ও সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে সিংগরিয়া পাথালদৌড় কালীবাড়ী রাস্তাটি দ্রুত পাকা করণের জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জোর দাবী জানাচ্ছি। অপরদিকে খোকসা উপজেলা এল.জি.ই.ডি’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আমজাদ হোসেন এর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও মোঠোফোনে তাকে পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *