রবিবার, আগস্ট ১৯, ২০১৮, ১২:১৯:৫০ পূর্বাহ্ণ
Home » অন্যান্য » কুষ্টিয়া ইবি থানায় গুম হওয়া লাশ হসপিটালে যেয়ে জীবিত

কুষ্টিয়া ইবি থানায় গুম হওয়া লাশ হসপিটালে যেয়ে জীবিত

কুষ্টিয়া থেকে রিয়াজুল ইসলাম সেতু : হঠাৎ গত রাত আনুমানি ১২ টায় কু্ষ্টিয়া জেলা ইবি থানাধীন আব্দালপুর গ্রামে অর্ধ শতাধিক পুলিশ। গুম হওয়া লাশ খোজায় ব্যস্ত হয়ে পড়ে। লাশ গুম করায় ব্যর্থ হয়েছে আশরাফুলের সহযোগীরা। ঘটনা সুত্রে জানা যায়, পরকীয়া সংক্রান্ত জের ধরে আব্দালপুর গ্রামের জের আলীর ছেলে খোকন গাইনকে বেধড়ক মারিপট করেছে, একই গ্রামের আশরাফুল ও তার সহযোগীরা। এক পর্যায় মৃত ভেবে তাকে গুম করার চেষ্টা করে, পাশে ধান ক্ষেতের কাদায় ফেলে রাখে, আব্দালপুর পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ সংবাদ পেয়ে ঘটনা স্থলে পৌছায়, এদিকে থানার ওসি মো. রতন শেখ সংবাদ পেয়ে প্রায় অর্ধ শতাধিক পুলিশ নিয়ে গত রাত আনুমানি ১২টার সময় উপস্থিত হয়ে গুম হওয়া খোকনে খুজতে থাকে, সারারাত অভিযান শেষে ভোর ৪টার সময় উদ্ধার করে। ওসি রতন শেখ জানায়, উদ্ধারের পর তাকে মৃত মনে করে কাদামাটি শরীরে কু্ষ্টিয়া সদর হসপিটালে পাঠায়, কর্তব্যরত চিকিৎসক জীবিত আছে টের পেয়ে ভর্তি করে চিকিৎসা প্রদান করে। চিকিৎসক জানায়, মাথায় প্রচন্ড আঘাত পাওয়ায় জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিলো। শরীরে জখম নিয়ে আহত খোকন গাইন বর্তমানে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের ১০ নং ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, আব্দালপুর গ্রামের দিনমজুর আশরাফুলের স্ত্রী মমতাজের সাথে আহত ব্যক্তি খোকন গাইনের পরকীয়ার সম্পর্ক তৈরী। দুজনের গোপন আলাপচারিতাও দীর্ঘদিনের। এরই ধারাবাহিকতায় ৩০/০৭/১৮ ইং রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে খোকন গাইন মমতাজের সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে আশরাফুলের বাড়িতে আসে। আশরাফুল খোকনের উপস্থিতি বুঝতে পেরে বেশ কয়েকজন সহযোগীকে নিয়ে খোকন গাইনকে বেধড়ক মারপিট করে মৃত ভেবে বাড়ির পাশে কাঁদা পানির মধ্যে ফেলে গুম করার চেষ্টা করে বলে জানা যায়। এদিকে উক্ত ঘটনায় ওসির নেতৃত্বে আশরাফুল ও তার স্ত্রী মমতাজকে জিঙ্গাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *