সোমবার, অক্টোবর ২২, ২০১৮, ১:০১:২৯ পূর্বাহ্ণ
Home » জাতীয় » কুমারখালী ভূমি অফিস এক টেবিলে সকল সেবা

কুমারখালী ভূমি অফিস এক টেবিলে সকল সেবা

কুষ্টিয়া থেকে রিয়াজুল ইসলাম সেতু :
ঘড়ির কাঁটা তখন সাড়ে দশটা। গ্রামের সরল কৃষক মনের মানুষ গুলো, সকলের হাতে একটি করে ব্যাগ। তার মধ্যে কিছু কাগজ পত্র। চিন্তা মগ্ন সকলেই, না জানি কখন কি ঘটে। অনেকটা বেশ শৃংখল ভাবে চেয়ারে বসে আছে আগন্ত লোকেরা। কেউবা পেপার পড়ছে, আবার কেউবা তৃষ্ণার্ত অবস্থায় মাঝে মাঝে পানি পান করছে। সুন্দর পরিপাটি টাইলস ঘরের মাঝে ফ্যান চলছে। ক্লান্ত-পরিশ্রান্ত মানুষগুলো যেন একটু আরাম আয়েশে বসে আছে। বলছি কুমারখালী ভূমি অফিসের সেবা প্রার্থীদের কথা। আধুনিক প্রতিচ্ছবি মানুষের সেবা কিভাবে তাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়, তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কুমারখালী সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহাম্মদ মোছাব্বেরুল ইসলাম। কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা মিলে এই উপজেলাটি গঠিত। ভূমি সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে নানাবিধ কার্যক্রম চালু করেছেন। বর্তমান সরকারের ডিজিটালাইজেশনের কারণে দুর্নীতির রাহুগ্রাস থেকে মানুষকে রক্ষা করতে এবং সাধারণ মানুষের সেবা কে সুনিশ্চিত করতে এ সকল কার্যক্রম হাতে নিয়েছিলেন যোগদানের পর থেকেই সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ মোছাব্বেরুল ইসলাম।
পেশাগত দায়িত্ব পালনে গিয়েছিলাম কুমারখালী উপজেলা ভূমি অফিসে। কেউ এসেছে নামজারি করতে, কেউ এসেছে আবার নিজের জমির রেকর্ড সংশোধন করতে, আবার কেউ বা খাজনা পরিষোধ সহ বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করতে। সকলেই অফিসে এসেছে নিজেদের জমির কাগজপত্র সংশোধনী করতে ভূমি কর্মকর্তার দপ্তরে। নির্ধারিত সময়ে এসিল্যান্ড এসে বসলেন শুনানির অফিসে। যেখানে বসে আছে উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত ভূমি সেবা নিতে আসা গ্রাহক (মুরুব্বিরা)।
পান্টি ইউনিয়নের ভালুকা গ্রামের মোহাম্মদ ইলিয়াস আলী মিয়া এসেছিলেন জমির নামজারি মামলার বিষয়ে জানতে। চৌরঙ্গী থেকে এসেছিলেন রেজাউল করিম। শিলাইদহ থেকে এসেছিলেন মাহাতাব উদ্দিন দীদার। কতটা অভিযোগ কত না সমস্যা সবকিছু নিমিষে সমাধান হয়ে গেল ভূমি কর্মকর্তার সম্মুখেই। কেউ বা তাৎক্ষণিক মৃদু স্বরে নামজারি করে চলে যাচ্ছে বা কাউকে আবার আগামী দিনের সময় প্রার্থনা করে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এলাকার মানুষের ভূমি সেবা তাৎক্ষণিক সমাধান পেয়ে বেশ আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত এলাকাবাসী।
সেবা প্রার্থী এলাকাবাসী ধন্যবাদ জানাল বর্তমান বাংলাদেশ সরকার ডিজিটাইজেশন কে। এ সকলের নেপথ্যে যিনি কাজ করছেন তিনি হলেন কুমারখালী উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ শাহিনুজ্জামান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *