সোমবার, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৮, ১২:৪৪:৫০ পূর্বাহ্ণ
Home » আন্তর্জাতিক » কানাডার সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করল সৌদি আরব

কানাডার সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করল সৌদি আরব

অনলাইন ডেস্ক
অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগে কানাডার রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের পর সৌদি আরব এবার টরন্টোর সঙ্গে নিজেদের বিমান যোগাযোগ স্থগিত করেছে।

সৌদি আরবে গ্রেপ্তার হওয়া অধিকারকর্মীদের মুক্তি দিতে গত শুক্রবার আহ্বান জানায় কানাডা। এতে বেঁকে বসে সৌদি সরকার। তারা মনে করছে, এটা কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত। এখানেই থেকে থাকেনি দেশটি। গত রোববার তারা কানাডার রাষ্ট্রদূত ডেনিস হরাককে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশ ছাড়তে বলে। নিজের রাষ্ট্রদূতকেও কানাডা থেকে প্রত্যাহার করে নেয়। পাশাপাশি কানাডার সঙ্গে নতুন বাণিজ্য ও বিনিয়োগ স্থগিতের ঘোষণা দেয়। তবে এর কারণে দুই দেশের মধ্যে চলমান প্রায় ৪০০ কোটি মার্কিন ডলারের বাণিজ্য ও ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের প্রতিরক্ষা চুক্তি ক্ষতির মুখে পড়বে কি না, সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

রোববার এক বিবৃতিতে সৌদি আরব বলেছে, সৌদি আরবে আটক অধিকারকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে কানাডার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও কানাডার দূতাবাসের আহ্বান জানানোর বিষয়টি মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়েছে।

গতকাল সোমবার সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের কানাডার সমালোচনা করে বলেন, ‘বিভ্রান্তিকর’ তথ্যের ভিত্তিতে কানাডা এ আহ্বান জানিয়েছে।

এর প্রতিক্রিয়ায় কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী চিরিসতিয়া ফ্রিল্যান্ড বলেন, ‘কানাডা সব সময় নিজের দেশ ও অন্যান্য দেশে মানবাধিকার ও নারী অধিকারের পক্ষে দাঁড়িয়েছে।’

সম্প্রতি সৌদি আরব দেশটির নারীদের গাড়ি চালনার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। কিন্তু অনেক নারী অধিকারকর্মীকে গ্রেপ্তার করে।

গতকাল সৌদি সরকার পরিচালিত আল-আরাবিয়ার খবরে বলা, কানাডার সঙ্গে শিক্ষার্থী বিনিময় কর্মসূচিও বন্ধ করবে সৌদি সরকার এবং সৌদি সরকারের বৃত্তিপ্রাপ্তদের অন্য দেশে পাঠানো হবে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ফ্রিল্যান্ড বলেন, এ সিদ্ধান্তের কারণে সৌদি আরবের যেসব শিক্ষার্থী এখানে পড়ার সুযোগ পাবে না, তাদের জন্য এটি লজ্জার।

প্রতিবেশী দেশ বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত জানিয়েছে, তারা সৌদি আরবের পাশে আছে। তবে তারা একই ধরনের কোনো পদক্ষেপের কথা বলেনি।

সৌদি আরব ও কানাডার ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে গতকাল যুক্তরাষ্ট্র এক বিবৃতিতে সৌদি সরকারের কাছে গ্রেপ্তার অধিকারকর্মীদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য চেয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র এক বিবৃতিতে বলে, ‘একই সঙ্গে আমরা সৌদি সরকারকে যথাযথ প্রক্রিয়ার প্রতি সম্মান দেখাতে এবং এসব অধিকারকর্মীদের মামলাগুলোর বর্তমান অবস্থা প্রকাশে তাগিদ দিয়ে যাচ্ছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *