সোমবার, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৮, ১:১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Home » আন্তর্জাতিক » ইন্টারপোলের প্রধানকে পাওয়া গেল চীনে?

ইন্টারপোলের প্রধানকে পাওয়া গেল চীনে?

অনলাইন ডেস্ক
পুলিশের আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারপোলের প্রধান মেং হোয়াওয়েই চীনে আটক আছেন। বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে একটি চীনা সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে। বলা হচ্ছে, চীনে মেং হোয়াওয়েই-এর বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের খবরে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। সংবাদমাধ্যমটি বলছে, ৬৪ বছর বয়সী মেং হোয়াওয়েই গত সপ্তাহে চীনে অবতরণের পর পরই তাঁকে আটক করা হয়। তবে কি কারণে এবং কোথায় তাঁকে আটক রাখা হয়েছে, সেই বিষয়ে কোনো খবর পাওয়া যায়নি।
মেং প্রায় এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ রয়েছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, এক সপ্তাহ আগে ফ্রান্সের লিঁও শহরে ইন্টারপোলের সদর দপ্তর থেকে বের হয়ে চীনের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন মেং হোয়াওয়েই। পরিবারের সদস্যদের দাবি, এরপর থেকেই তাঁর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। পরে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরু করে ফ্রান্স।
দুই বছর আগে ইন্টারপোলের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মেং। ইন্টারপোলের প্রথম চীনা প্রধান তিনি। মেং চীনের কমিউনিস্ট পার্টির একজন জ্যেষ্ঠ নেতা। এর আগে চীনের জননিরাপত্তা-বিষয়ক বিভাগের উপমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছিলেন তিনি।
বিশ্বের মোট ১৯২টি দেশ ইন্টারপোলের সদস্য। অপরাধীকে গ্রেপ্তার করতে কোনো দেশে কর্মকর্তা পাঠানো বা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার ক্ষমতা নেই ইন্টারপোলের। মেং-এর নিখোঁজ হওয়ার খবরে দেওয়া বিবৃতিতে সংস্থাটি বলেছে, এটি ফ্রান্স ও চীনের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিষয়। সংস্থাটির দাবি, প্রেসিডেন্ট নন, মহাসচিবই ইন্টারপোলের প্রতিদিনের কর্মকাণ্ড দেখভাল করে থাকেন।
বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, ইন্টারপোলের প্রধান হিসেবে ২০২০ সাল পর্যন্ত মেয়াদ ছিল মেংয়ের। ২০১৬ সালের নভেম্বরে তিনি সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। পুলিশ বিষয়ে প্রায় ৪০ বছরের অভিজ্ঞতা আছে তাঁর। ফরাসি পুলিশের দাবি, মেং-কে গত ২৯ সেপ্টেম্বর ফ্রান্সে সর্বশেষ দেখা যায়।
সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, চীনের আইন অনুযায়ী, আটকের পর সন্দেহভাজনের পরিবারের সদস্যদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জানানোর নিয়ম আছে। তবে তদন্ত বাধাগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকলে এর ব্যত্যয় ঘটে থাকে। ধারণা করা হচ্ছে, মেং-এর আটকের বিষয়ে তাঁর স্ত্রীকে কিছুই জানানো হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *